1. admin@sadhinotarkontho.com : admin :
  2. akter.panna.1@gmail.com : akter.panna.1 :
  3. mdashrafishurdi@gmail.com : Ashraful Abedin : Ashraful Abedin
  4. masud@sadhinotarkontho.com : masud :
বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ০৪:১৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবসে বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন প্রধানমন্ত্রীর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ প্রস্তুতির সিরিজ শুরু করছে পাকিস্তান-নিউজিল্যান্ড ইরানের বিরুদ্ধে নতুন নিষেধাজ্ঞা আরোপ করবে যুক্তরাষ্ট্র : হোয়াইট হাউস বিয়ের আগে কয়জনের সঙ্গে প্রেম ছিল বিদ্যা’র! বান্দরবানে যৌথবাহিনীর অভিযান: কেএনএফএর ৪সহযোগী গ্রেফতার ঈশ্বরদীতে নানা আয়োজনে পহেলা বৈশাখ পালিত ঈশ্বরদীতে বিশিষ্টজনদের সংবর্ধনা প্রদান ও ঈদ আনন্দ মেলার উদ্বোধন তরমুজের রাজধানীতে চলছে জমজমাট কেনাবেচা পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলে চলছে ‘বৈসাবি’ উৎসব পাকশী জোড়া সেতু এলাকায় বিনোদন প্রিয় দর্শনার্থীদের ভিড়

৮৭ বছরের বৃদ্ধা মাকেও বেধড়ক পিটিয়েছে হেফাজত কর্মীরা

  • প্রকাশিত : বুধবার, ৩১ মার্চ, ২০২১
  • ৭৭০ বার দেখা হয়েছে
মুন্সিগন্জ সংবাদদাতা।। গত ২৯ শে মার্চ মুন্সিগন্জে পুলিশ হেফাজত সংঘর্ষ চলাকালে হেফাজত কর্মীরা আওয়ামীলীগ নেতার বাড়িতে ঢুকে ভাংচুর ও অগ্নি সংযোগ করে। পরে নেতার ভাই সহ ৮৭ বছরের বৃদ্ধা মাকেও বেধড়ক পিটিয়েছে হেফাজত কর্মীরা।
মুন্সিগন্জের রাজানগর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি এ কে এম আলমগীর কবিরের মধুপুর গ্রামের বাড়িতে ঢুকে ভাঙচুর ও অহ্নি সংযোগ করে হেফাজত কর্মীরা। পরে তার ৮৭ বছরের বৃদ্ধা মা নুর জাহান বেগম ও সেজো ভাই মুনসুর সাদীকে (৫৫) পিটিয়ে মারাত্মক আহত করে তারা।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সংঘর্ষের ঘটনায় হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় নায়েবে আমীর আব্দুল হামীদ (মধুপুরী পীর) গুলিবিদ্ধ হওয়ার খবরে রাজানগর ইউনিয়নের মধুপুর মাদ্রাসার হেফাজতের নেতাকর্মীরা আওয়ামী লীগ ও অংগ সংগঠনের নেতাকর্মীদের বাড়িতে হামলা ভাঙচুর অগ্নিসংযোগ ও লুটপাট চালায়।
রাজানগর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি এ.কে. এম আলমগীর কবিরের মধুপুর গ্রামের বাড়িতে হামলা চালিয়ে বাড়ির ৫টি কক্ষের আসবাবপত্র ভাঙচুর করে অগ্নিসংযোগ করে। এ সময় বাড়িতে ছিলেন আলমগীর কবিরের ৮৭ বছরের রত্মগর্ভা বৃদ্ধা মা নুর জাহান বেগম ও সেজো ভাই মুনসুর সাদী (৫৫)। দুজনকেই নির্মমভাবে পেটানো হয়। গুরুতর আহত নূরজাহান বেগমকে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ও মুনসুর সাদীকে রাজধানীর ক্রিসেন্ট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
জানা যায়, সেই রত্নগর্ভা মা নূরজাহান বেগম ৬ ছেলে ৩ মেয়ে সন্তানের মা। ছেলের মধ্যে একজন কোরআনে হাফেজ, একজন সাবেক মেজর জেনারেল, একজন যুক্তরাষ্টের বিশিষ্ট চিকিৎসক, একজন অগ্রণী ব্যাংকের সাবেক মহাব্যবস্থাপক ও দুজন বিশিষ্ট ব্যবসায়ী। তাঁকে ১৯৯৫ সালে রাজানগর যুব সংঘের পক্ষ থেকে রত্নগর্ভা মা সম্মাননা প্রদান করা হয়।
আহত এই মা বলেছেন, ১৯৭১ সালের পাক হানাদার বাহিনীর হামলাকেও হার মানিয়েছে হেফাজতের লোকজন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ

সাম্প্রতিক সংবাদ

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায় সিসা হোস্ট