1. admin@sadhinotarkontho.com : admin :
  2. akter.panna.1@gmail.com : akter.panna.1 :
  3. mdashrafishurdi@gmail.com : Ashraful Abedin : Ashraful Abedin
  4. masud@sadhinotarkontho.com : masud :
শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ০৪:১৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
ঈশ্ববদীসহ বিভিন্ন জেলাবাসীদের সেবা বৃদ্ধি এবং দেশের উন্নয়নে ভ্যাট-ট্যাক্স আয়ের লক্ষে উত্তরাঞ্চলের সর্ববৃহৎ ও আন্তর্জাতিক মানের শপিং কমপ্লেক্স আরআরপি সেন্টারে লটারী ড্র-অনুষ্ঠিত ঈদে প্রকাশিত হলো যুদ্ধবিরোধী গান প্যালেস্টাইন : যুদ্ধ যুদ্ধ খেলা ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবসে বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন প্রধানমন্ত্রীর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ প্রস্তুতির সিরিজ শুরু করছে পাকিস্তান-নিউজিল্যান্ড ইরানের বিরুদ্ধে নতুন নিষেধাজ্ঞা আরোপ করবে যুক্তরাষ্ট্র : হোয়াইট হাউস বিয়ের আগে কয়জনের সঙ্গে প্রেম ছিল বিদ্যা’র! বান্দরবানে যৌথবাহিনীর অভিযান: কেএনএফএর ৪সহযোগী গ্রেফতার ঈশ্বরদীতে নানা আয়োজনে পহেলা বৈশাখ পালিত ঈশ্বরদীতে বিশিষ্টজনদের সংবর্ধনা প্রদান ও ঈদ আনন্দ মেলার উদ্বোধন তরমুজের রাজধানীতে চলছে জমজমাট কেনাবেচা

মিয়ানমারে চলমান সংঘাতের উপর গৃহীত রেজুলেশনে অনুপস্থিত থেকেছে বাংলাদেশ

  • প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ২২ জুন, ২০২১
  • ৭৯৭ বার দেখা হয়েছে

অনলাইন ডেক্স।। রোহিঙ্গাদের সমস্যাকে ছোটো করে দেখতে চাইছে পশ্চিমা বিশ্ব এবং এ কারণে মিয়ানমারে চলমান সংঘাতের উপর গৃহীত রেজুলেশনে অনুপস্থিত থেকেছে বাংলাদেশ।

গন হত্যার শিকার রোহিঙ্গা সমস্যাকে গুরুত্ব না দিলে এই ধরনের রেজুলেশনে বাংলাদেশ সমর্থন দেবে না বলে পশ্চিমা বিশ্বকে এই শক্ত বার্তা দিয়েছে বাংলাদেশ।

এ বিষয়ে একজন কূটনীতিক বলেন, ‘পশ্চিমা বিশ্ব ধরেই নিয়েছে মিয়ারমার নিয়ে যেকোনো ধরনের রেজুলেশনে বাংলাদেশ সমর্থন দেবে। কিন্তু এটি আমাদের অবস্থান যে, রোহিঙ্গা ইস্যুকে গুরুত্ব না দিলে আমরা সমর্থন দেবো না।’

চার পাতার এই রেজুলেশনে দুটি ভাগ আছে। প্রথমভাগ অর্থাৎ প্রিআ্যম্বল প্যারাগুলিতে মিয়ানমার পরিস্থিতি বা ব্যাকগ্রাউন্ড বর্ণনা করা হয়েছে এবং অপারেশনাল প্যারাতে কি করনীয় সেটি উল্লেখ করা হয়েছে। ওই রেজুলেশনে অপারেশনাল প্যারা অর্থাৎ সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অংশটিতে দেশটির গণতান্ত্রিক সমস্যা, জরুরি অবস্থা, রাজনৈতিক বন্দী, গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠা ও আসিয়ানের কেন্দ্রীয় ভূমিকার প্রতি নজর দেওয়া হয়েছে। রোহিঙ্গা বিষয়টি উল্লেখ করা হয়েছে প্রিআ্যম্বল প্যারায় অর্থাৎ এই রেজুলেশনে তাদের নিয়ে কোন কিছু করনীয় নেই।

এ বিষয়ে আরেকজন কর্মকর্তা বলেন, ‘এই রেজুলেশন নিয়ে কয়েক মাস ধরে আলোচনা চলছে। ভোটাভুটির আগের দিন পর্যন্ত আমরা অনুরোধ করেছি রোহিঙ্গা বিষয়টি যেন অপারেশনাল প্যারায় থাকে। কিন্তু আমাদের কথা তারা রাখেনি।’

কোন যুক্তি দেখিয়ে পশ্চিমা বিশ্ব রোহিঙ্গা সমস্যাকে খাটো করে দেখছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘তাদের বক্তব্য হচ্ছে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন বা অন্য কিছু করনীয় হিসাবে উল্লেখ থাকলে মিয়ানমার সামরিক সরকারকে বৈধতা দেওয়া হবে।’

তিনি বলেন, ‘এটি অত্যন্ত খোড়া যুক্তি কারণ ‘রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন জরুরি’ বা এই ধরনের বাক্য লেখা হলে সামরিক সরকারকে বৈধতা দেওয়া না কারণ এখানে বিষয়টি জরুরি সেটির কথা উল্লেখ করা হয়েছে কিন্তু কে করবে সেটির কথা বলা হয়নি।’

এই রেজুলেশনে অপারেশনাল প্যারায় যা বলা হয়েছে সেটির বিষয়ে বাংলাদেশের অমত নেই তবে রোহিঙ্গা ইস্যুটির গুরুত্ব ঠিকমতো প্রতিফলিত না হওয়ায় এটি সমর্থন করেনি বাংলাদেশ বলে তিনি জানান।

পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন এ ব্যাপারে সাংবাদিকদের জানান, ‘আমাদের যে চাহিদা ছিল সেটির যথাযথ প্রতিফলন না থাকার কারণে আমরা রেজুলেশনে অনুপস্থিত থেকেছি।’

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ

সাম্প্রতিক সংবাদ

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায় সিসা হোস্ট