1. admin@sadhinotarkontho.com : admin :
  2. akter.panna.1@gmail.com : akter.panna.1 :
  3. mdashrafishurdi@gmail.com : Ashraful Abedin : Ashraful Abedin
  4. masud@sadhinotarkontho.com : masud :
বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ১১:২৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
ব্রিটিশ প্রকৌশলী রবার্ট উইলিয়াম গেলসের সুরম্য দ্বিতল বিশিষ্ট বাংলো এবং ব্রিটিশ প্রকৌশলীর স্মৃতিস্থান এখনও দর্শনার্থীদের আকৃষ্ট করে ঈশ্বরদীতে ২৯৫ বোতল ফেনসিডিল ও নগদ টাকাসহ রেল নিরাপত্তা বাহিনীর সিপাহী আটক ঈশ্বরদীতে অনারস প্রতীকের প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী সমাবেশ ও মিছিল অনুষ্ঠিত ঈশ্বরদীতে চলতি বোরো মওসুমের ধান-চাল সংগ্রহ অভিযানের উদ্বোধন স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘নিউ মিডিয়া ‘শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত রেলওয়ে পশ্চিমাঞ্চলে শিডিউল বিপর্যয়ে আর্থিক ক্ষতির সম্মুখিন হচ্ছে রেল কর্তৃপক্ষ প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ অমান্য করে কতিপয় রাজনৈতিক নেতার ছত্রছায়ায় পৃথিবীর সেরা হার্ডিঞ্জ ব্রীজ ধ্বংসের পাঁয়তারা চলছে সবকিছু ব্যক্তিগত রাখতে পছন্দ করেন সোনাক্ষী সিনহা সকলের মাঝে এসডিজি বিষয়ক সচেতনতা ছড়িয়ে দিতে হবে : স্পীকার ইসরাইলে স্বাধীন ফিলিস্তিন রাস্ট্র প্রতিষ্ঠা ও গণহত্যা বন্ধের দাবিতে ঈশ্বরদীতে ছাত্রলীগের পদযাত্রা ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত

বিখ্যাত রবীন্দ্র সংগীত শিল্পী মিতা হক আর নেই

  • প্রকাশিত : রবিবার, ১১ এপ্রিল, ২০২১
  • ১১৯২ বার দেখা হয়েছে

বিনোদন ডেক্স।। বিখ্যাত রবীন্দ্র সংগীত শিল্পী মিতা হক আজ রবিবার (১১ই এপ্রিল) সকালে রাজধানীর স্পেসালাইজড হাসপাতালে শেষ নিঃস্বাস ত্যাগ করেছেন (ইন্না লিল্লাহী ওয়া ইন্না এলাহী রাজেউন)। তার নিকটাত্মিয় বিষয়টি নিশ্চিৎ করেছেন।

তাঁর এক আত্মিয় জানান, গত ৩১শে মার্চ তাঁর শরীরে করোনা ভাইরাস পজেটিভ আসে। তখন তিনি হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা গ্রহন করেন। এবং করোনা থেকে আরোগ্য লাভ করে হাসপাতাল থেকে বাসায় ফিরে আসেন। কিন্তু তিনি বেশ কিছুদিন আগে থেকেই কিডনি রোগে ভুগছিলেন। এজন্য তাঁকে ডাইলোসিস করানো হতো। গত শনিবার (১০ই এপ্রিল) তাঁর ডাইলোসিস করানোর সময় প্রেসার নেমে যায়। এরপর একটু প্রেসার বাড়লে বাসায় নেওয়া হয়। বাসায় ফের প্রেসার নেমে গেলে তাঁকে আবার হাসপাতালে নেওয়া হয়। হাসপাতালের চিকিৎসকরা তখন জানান হার্ড এ্যাটাক হয়েছে মিতা হকের। এরপর ভেন্টিলেশনে রাখা হয় তাঁকে। আজ সকালে তিনি চলে যান না ফেরার দেশে।

জানা গেছে, কেরানীগঞ্জে তাাঁর নিজ বাড়িতে তাঁকে দাফন করা হবে।

১৯৬৩ সালে মিতা হক জন্মগ্রহণ করেন। তিনি প্রথমে তাঁর চাচা ওয়াহিদুল হক এবং পরে ওস্তাদ মোহাম্মদ হোসেন খান ও সনজীদা খাতুনের কাছে গান শেখেন। তিনি বার্লিন আন্তর্জাতিক যুব ফেস্টিভালে ১৯৭৪ সালে অংশ নেন। ১৯৭৬ সাল থেকে তিনি তবলা বাদক মোহাম্মদ হোসেন খানের কাছে গান শেখেন। ১৯৭৭ সাল থেকে নিয়মিত তিনি বাংলাদেশ টেলিভিশন ও বেতারে গান পরিবেশন করেছেন। ২০১৬ সালে শিল্পকলা পদক পান। কবি রবীন্দ্রনাথের ১৫৬তম জন্মবার্ষিকীতে তাঁকে বাংলা একাডেমির রবীন্দ্র পুরস্কার দেওয়া হয়। চ্যানেল আই প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত ‘রবি-চ্যানেল আই রবীন্দ্রমেলা’য় রবীন্দ্রসংগীতে অসামান্য অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে মিতা হককে সম্মাননা দেওয়া হয়। ২০২০ সালে বাংলাদেশ সরকার তাঁকে একুশে পদকে ভূষিত করে।

মিতা হক অভিনেতা-পরিচালক খালেদ খানের সঙ্গে বিবাহ করেন। খালেদ খান ২০১৩ সালের ২০ ডিসেম্বর মৃত্যুবরণ করেন। তাঁদের একমাত্র কন্যা সন্তান ফারহিন খান জয়িতা।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ

সাম্প্রতিক সংবাদ

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায় সিসা হোস্ট