1. admin@sadhinotarkontho.com : admin :
  2. akter.panna.1@gmail.com : akter.panna.1 :
  3. mdashrafishurdi@gmail.com : Ashraful Abedin : Ashraful Abedin
  4. masud@sadhinotarkontho.com : masud :
রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ০৫:০৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
ঈশ্বরদীর দাশুড়িয়া প্রি-ক্যাডেট স্কুলে মুক্তিযুদ্ধ কর্ণারের উদ্বোধন ঈশ্বরদীতে উপজেলা চেয়ারম্যান পদের দুই প্রার্থীর নির্বাচন জমে উঠেছে সন্ত্রাস মুক্ত স্মার্ট ও ডিজিটাল ঈশ্বরদী গড়ার লক্ষ্যে উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থীর পথসভা অনুষ্ঠিত সাপ্তাহিক ঈশ্বরদী’র ২২ বর্ষপূতি: উৎসব শোভাযাত্রা সূধী সমাবেশ সঙ্গীত সন্ধ্যা ঈশ্বরদী পৌর এলাকায় আনারস প্রতিকের প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী জনসভা অনুষ্ঠিত আচরণবিধি লঙ্ঘনের দায়ে পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার চেয়ারম্যান প্রার্থী রিয়াজের প্রার্থিতা বাতিল ব্রিটিশ প্রকৌশলী রবার্ট উইলিয়াম গেলসের সুরম্য দ্বিতল বিশিষ্ট বাংলো এবং ব্রিটিশ প্রকৌশলীর স্মৃতিস্থান এখনও দর্শনার্থীদের আকৃষ্ট করে ঈশ্বরদীতে ২৯৫ বোতল ফেনসিডিল ও নগদ টাকাসহ রেল নিরাপত্তা বাহিনীর সিপাহী আটক ঈশ্বরদীতে অনারস প্রতীকের প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী সমাবেশ ও মিছিল অনুষ্ঠিত ঈশ্বরদীতে চলতি বোরো মওসুমের ধান-চাল সংগ্রহ অভিযানের উদ্বোধন

পাকশী পদ্মা নদীতে ভাঙ্গন,তীরবর্তী বাসিন্দাদের মনে আতংক

  • প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, ২৩ জুন, ২০২২
  • ৫২৩ বার দেখা হয়েছে
ঈশ্বরদীর সাঁড়ায় পদ্মানদীর ভাঙ্গনের একাংশ

স্টাফ রিপোর্টার।। পানি বৃদ্ধির সাথে সাথে সাঁড়া ইউনিয়নের পদ্মা নদীর তীরবর্তী কয়েকটি গ্রামের বাসিন্দাদের মধ্যে নদী ভাঙ্গন আতংক দেখা দিয়েছে।স্বাধিণতার পর থেকে বর্ষা মৌসুমে এই নদীতে প্রতি বছর পানি বৃদ্ধির কারণে প্রায় এক হাজার পরিবার, মসজিদ, মন্দির, খেলার মাঠ, আবাদি জমিসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান নদী গর্ভে বিলিন হয়ে গেছে। শত শত পরিবার এলাকা ছেড়ে অন্যত্রে চলে গিয়ে নতুন করে বসতি গড়ে তুলেছে। পাল পাড়ার অনেক পরিবার পৈত্রিক পেশা ছাড়তে বাধ্য হয়েছে। সংকুচিত হয়েছে এলাকার ঐতিহ্যবাহী গরুর গাড়ীর চাকা তৈরী শিল্পের। এবারের নদী ভাঙ্গনের ফলে সাঁড়ার নদীর তীর সংরক্ষন বাঁধ ও লালনশাহ সেতু সংরক্ষন বাঁধ অনেকটা হুমকির মধ্যে পড়েছে। নদী পাড়ের বসতীদের আশংকা পানির তীব্রতা বৃদ্ধি হলে বাঁধটি যে কোন সময় মারাত্মক হুমকির মধ্যে পড়তে পাড়ে। বৃহস্পতিবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, এবার বর্ষার শুরুতেই নদীর বাঁধের সীমানার কাছে ভাঙ্গন এগিয়ে এসেছে। এ কারণে নদীর তীরবর্তী বসতীরা আতংকিত হয়ে পড়েছে। তারা নানা শংকার মধ্য দিয়ে দিন অতিবাহিত করছেন। ব্লক পাড়া ও থানা পাড়া এলাকায় এক সপ্তাহের মধ্যে ভাঙ্গন দেখা
দিয়েছে। এরই মধ্যে পানির তীব্রতায় প্রায় দশ বিঘা ধানের জমি নদীতে তলিয়ে গেছে। নদী পাড়ের বসতীরা জানান, টানা বৃষ্টি ও পাহাড়ী ঢলে দেশের বিভিন্ন নদনদীর পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। যে কারণে পাকশী পদ্ম নদীতেও পানি বৃদ্ধি পাচ্ছে। পানি বাড়ার কারণে ৫ নং ঘাটের সামনের সাঁড়াঘাটের নীচের প্রায় পঞ্চাশ বিঘা ধানের জমি পানির নীচে তলিয়ে গেছে।ব্যাংক পাড়ায় তৈরী চিতল মাছের
অভয়ারণ্যও পানিতে ভেসে গেছে।এলাকার মিজানুর রহমান জানান, বেশ কয়েক মাস আগে সরকারী উদ্যোগে সামান্য কিছু বালুর বস্তা ফেলে নদী ভাঙ্গনের চেষ্টা করা হলেও আজ তার কোন অস্তিত্ব নেই। সাঁড়া ব্লকপাড়ায় নদীর গলন বেশী হওয়ায় এখানেও ভেঙ্গেছে এবং কিছু জমি পানিতে তলীয়ে গেছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ

সাম্প্রতিক সংবাদ

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায় সিসা হোস্ট