1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : Ashraful Abedin : Ashraful Abedin
  3. [email protected] : masud :
মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ০৫:৫৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
সোমবার সারাদেশে সব জুয়েলারি প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন নিয়ে কাজ করছেন-ডেপুটি স্পীকার ঈশ্বরদী নিরাপত্তাবাহিনীর সদস্যের মানবেতর জীবনযাপন, দেখার কেউ নেই ঈশ্বরদী উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা তৈয়ব আলী আর নেই রেলের উন্নয়নে মহাপরিকল্পনা হাতে নিয়ে কাজ করছে সরকার-রেল সচিব ঈশ্বরদীতে গৃহবধু মালা হত্যার বিচার ও আসামিদের ফাঁসির দাবিতে সংবাদ সম্মেলন ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত ঈশ্বরদী কিন্ডার গার্টেন এসোসিয়েশনের প্রীতি সম্মিলনে নতুন কমিটি গঠন আকরাম আলী খান সঞ্জু ফুটবল টুর্ণামেন্টে জাগ্রত সংঘ ৩-১ গোলে চ্যাম্পিয়ন জেলা পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ঈশ্বরদী উপজেলা আওয়ামী লীগের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত টিসিবির জন্য কেনা হবে ১৬৫ লাখ লিটার সয়াবিন

ধর্ষণ মামলায় এক পুলিশ সদস্য গ্রেফতার……

  • প্রকাশিত : শুক্রবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ৩২৫ বার দেখা হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার।। ফেনীর ফুলগাজীতে স্কুলছাত্রী ধর্ষণ মামলায় রাঙামাটি থেকে এক পুলিশ সদস্য গ্রেফতার হয়েছে।

শুক্রবার (২৬শে ফেব্রুয়ারী) তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। গ্রেফতারকৃত পুলিশ সদস্য ওহিদুল আলম শাওন রাঙামিটির একটি ফাঁড়িতে কর্মরত ছিলো।

বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) ফেনী সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কামরুল হাসানের আদালতে পুলিশ কনস্টেবলের বিরুদ্ধে ২২ ধারায় জবানবন্দি দেন ওই স্কুলছাত্রী। সে ফুলগাজীর একটি স্কুলে নবম শ্রেণিতে পড়ে। গত ১২ ফেব্রুয়ারি এক কন্যা সন্তান প্রসব করে সেই ছাত্রী।

আদালত সূত্রে জানা যায়, শাওন ফুলগাজী থানায় কর্মরত থাকাকালে এক বছর আগে ওই ছাত্রীর সাথে সম্পর্ক গড়ে উঠে। এক পর্যায়ে ছাত্রীটি গর্ভবতী হয়ে পড়ে। শাওনকে বিয়ে করার জন্য চাপ দেয়া হলেও সে কিছুতেই রাজী হয়নি। পারিবারিকভাবে দেনদরবার করেও কোনো ফল পাওয়া যায়নি। গত ১২ ফেব্রুয়ারি ওই ছাত্রীটি এক কন্যা সন্তান জন্ম দেন।

এই ঘটনায় ছাত্রীটি ২৫ ফেব্রুয়ারি ফুলগাজী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। থানার উপ-পরিদর্শক রাশেদুল ইসলাম মামলাটির তদন্তের দায়িত্ব পায়। মামলার বিবরণে বলা হয়, বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে প্রথমে ছাত্রীটির সাথে সখ্যতা এবং একদিন ঘুরে বেড়ানোর কথা বলে ফেনী শহরের কোন একটি বাসায় নিয়ে ফলের জুসের সাথে চেতনা নাশক ওষুধ খাইয়ে ধর্ষণ করা হয়। প্রায় তিন ঘণ্টা পর জ্ঞান ফিরলে ছাত্রীটি যখন বিষয়টি নিয়ে প্রতিবাদ করে তখন তার অশ্লীল ভিডিও ধারণ করা হয়েছে বলে জানিয়ে তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দেয়া হয়। এভাবে একাধিকবার ধর্ষণের শিকার হয়ে গর্ভবতী হয়ে পড়ে সে। বিষয়টি ঐ পুলিশ সদস্যকে জানালে সে নানা কৌশলে এড়িয়ে যায়। মামলার এজাহারে এবং ২৫ ফেব্রুয়ারি হাকিমের সামনে এমন জবানবন্দি প্রদান করে ঐ ছাত্রী।

মামলা দায়ের করার বিষয়টি নিশ্চিত করেন ফুলগাজী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কুতুব উদ্দিন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ

সাম্প্রতিক সংবাদ

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায় সিসা হোস্ট